দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, বিরোধীদের বিরুদ্বে সজাগ থাকতে হবে- সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-মাইজভাণ্ডারী (মা.জি.আ.)

আজকের শরীয়তপুর প্রতিবেদক:

সৈয়দ মইনুদ্দীন আহমদ মাইজভাণ্ডারী ট্রাস্টের সাধারণ সভা আন্জুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভাণ্ডারীয়ার উদোগে ১১ জুন দুপুরে ঢাকার মিরপুর-১ (শাহ আলী বাগে) খলিফা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন মাইজভাণ্ডার দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন পার্লামেন্ট অব ওয়ার্ল্ড সূফীজ প্রেসিডেন্ট, বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির (বিএসপি) চেয়ারম্যান শাহ্সূফী সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী আল্-মাইজভাণ্ডারী (মা.জি.আ.)। ট্রাস্টের বার্ষিক রিপোর্ট পেশ করেন মহাসচিব মহাসচিব অ্যাডভোকেট কাজী মহসীন চৌধুরী। সভাপতির বক্তব্যে সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ মাইজভাণ্ডারী ট্রাস্টের সার্বিক কার্যক্রম তুলে ধরে বলেন, সৈয়দ মইনুদ্দীন আহমদ মাইজভাণ্ডারী ট্রাস্টের মাধ্যমে সারাদেশে মানবিক কার্যক্রম চালিয়ে যেতে হবে। গত কয়েক দিন আগে সিলেটে বন্যার্তদের পাশে থেকে ট্রাস্টের সদস্যরা অসহায়দের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ও ত্রাণ সহায়তা করেছে। দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, উন্নয়ন, গণতন্ত্র, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে সৈয়দ মইনুদ্দীন আহমদ মাইজভাণ্ডারী ট্রাস্ট, বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির (বিএসপি), আন্জুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভাণ্ডারীয়া, মইনীয়া যুব ফোরাম, মইনীয়া ওলামা মাশায়েখ ফোরাম, মইনীয়া মহিলা ফোরাম, সদস্যরা দেশের বিভিন্ন এলাকায় কাজ করে যাচ্ছে।
তিনি বলেন, আমাদের প্রাণপ্রিয় মুর্শিদ কেবলা সাইয়্যিদ মইনুদ্দীন আহমদ মাইজভাণ্ডারী (ক.) ছিলেন মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক। মুক্তিযুদ্ধের ৯ মাস মাইজভাণ্ডার দরবার শরীফে লাল সবুজের পতাকা উড্ডীন ছিল। তাই মাইজভাণ্ডার দরবার শরীফ সবসময় মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন, অসম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করে যাচ্ছে। মাইজভাণ্ডারী অনুসারিরাও সর্বদা এ মহৎ কাজে সহযোগিতা করে যাচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, বৈশ্বিক মহামারি করোনা কালিন সারাদেশের ৩৫ টি জেলায় খাদ্য সামগ্রী, ত্রাণ সামগ্রী, পিপিই, মাস্ক, স্বাস্থ্য সুরক্ষায় হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান, রুমালসহ বিভিন্ন সামগ্রী বিতরণ করেছে। এছাড়াও ফ্রি চিকিৎসা সেবা, ব্লাড গ্র“পিং, রক্তদান কর্মসূচি, শিক্ষা উপকরণ, শীত বস্ত্র বিতরণ, বৃক্ষরোপণ ও বিতরণ কর্মসূচি বাস্তবায়িত হয়েছে।
মইনীয়া যুব ফোরাম করোনা কালীন মানবিক কাজে সাফল্য অর্জন করায় শেখ হাসিনা ইয়ুথ ভলান্টিয়ার্স অ্যাওয়ার্ড ২০২০ এবং ওআইসি ইয়ুথ ক্যাপিটাল অ্যাওয়ার্ড ২০২০ অর্জন করেছে। তিনি আশেকানদের উপরোক্ত কার্যক্রম অব্যাহত রাখার নির্দেশ দেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাকা-১৪ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আল্হাজ্ব আগা খান মিন্টু বলেছেন, আমার বাবা মাইজভাণ্ডারের বড় খাদেম ছিলেন। সেই হিসেবে আমিও এই দরবারের একজন ভক্ত। সৈয়দ মইনুদ্দীন আহমদ হুজুরের কাছে আমি দীর্ঘদিন যাতায়াত করেছি। এখন দাওয়াত পাইনা বিধায় আসি না। ভবিষ্যতে দাওয়াত পেলে আসব। আমি যখন ওয়ার্ড কমিশনার ছিলাম তখন মায়া চৌধুরীর সাথে এসেছিলাম। তিনি বলেন, আমি সূফিবাদকে সম্মান করি। আমিও সূফিবাদের লোক। আপনারা যেকোনো সহযোগিতা আমার কাছে পাবেন। কারণ আমিও মাজার ভক্ত। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার অলিখিত নির্দেশ রয়েছে, যারা সূফিবাদে বিশ্বাসী তাঁদের সম্মান ও সহযোগিতা করার জন্য।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, মইনীয়া যুব ফোরামের সভাপতি শাহ্জাদা সাইয়্যিদ মেহবুব-এ-মইনুদ্দীন আল্-হাসানী, কার্যকরী সভাপতি শাহ্জাদা সাইয়্যিদ মাশুক-এ-মইনুদ্দীন আল্-হাসানী।
বক্তব্য রাখেন আন্জুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভাণ্ডারীয়ার মহাসচিব আল্হাজ্ব শাহ্ মো: আলমগীর খান আল্-মাইজভাণ্ডারী, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. জালাল উদ্দীন, প্রচার সম্পাদক মাওলানা রুহুল আমীন ভূঁইয়া চাঁদপুরী, মইনীয়া ওলামা মাশায়েখ ফোরামের আহ্বায়ক মুফতী খাজা বাকী বিল্লাহ আল্-আযহারী, মাওলানা শেখ সাদি আব্দুল্লাহ সাদকপুরী, মাওলানা আব্দুস ছাত্তার সিদ্দিকী, মাওলানা মাকসুদুর রহমান, মইনীয়া জাতীয় গণমাধ্যম ফোরামের আহ্বায়ক ঢালী কামরুজ্জামান হারুন, যুগ্ন আহ্বায়ক মহি উদ্দীন আহমেদ, সদস্য সচিব মো: ইব্রাহিম মিয়া, মইনীয়া যুব ফোরামের সাধারণ সম্পাদক শাহ্ মো: আসলাম হোসাইন, হাবিবুর রহমান পায়েল, চৌধুরী মো: হোসেন, জুনায়েদ সিদ্দিকী, জামাল খান প্রমুখ।

Facebook Comments

About T. M. Golam Mostafa

Check Also

উদ্বোধন হলো পদ্মা সেতু, স্বপ্ন ছুঁয়েছে বাংলাদেশ

আজকের শরীয়তপুর প্রতিবেদক: দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান হলো। শনিবার (২৫ জুন) দুপুর ১২টায় পদ্মা সেতুর উদ্বোধন …

কপি না করার জন্য ধন্যবাদ।