মাসুদ পারভেজ লিটনকে চতুর্থ বারেরমত চেয়ারম্যান নির্বাচিত করতে চায় পুর্ব-ডামুড্যা ইউনিয়নের জনগণ

শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ
শরীয়তপুর জেলার শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান হিসেবে স্বর্ণ-পদক প্রাপ্ত বিদেশ ভ্রমনকারি ৩ বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ মাসুদ পারভেজ লিটন হাওলাদারকে চতুর্থ বার চেয়ারম্যান হিসেবে পেতে চায় পূর্ব-ডামুড্যা ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণ। (যার নির্বাচনী প্রতিক চশমা)

পূর্ব-ডামুড্যা ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ড গ্রাম মহল্লা ঘূরে সর্বস্তরের জনগণের সাথে আলাপকালে তারা বলেন চেয়ারম্যান লিটন হাওলাদার, এর বাবা আব্দুল করিম হাওলাদার পূর্ব-ডামুড্যা ইউনিয়ন আওমী লীগের সভাপতি ও চেয়ারম্যন ছিলেন, তিনি একজন সৎ যোগ্য শিক্ষিত, বিনয়ী সদালাপি ব্যক্তি এবং ৩ বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান সু-নামের সহিত দীর্ঘ ১৮ বছর যাবৎ চেয়ারম্যান হিসেবে পূর্ব-ডামুড্যা ইউনিয়নের দায়িত্ব পালন করে আসছেন।
তিনি বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী ও চিকিৎসাভাতা,বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ ব্রীজ,কালভার্ড,কাঠেরপুল-রাস্তা ঘাট নির্মাণ সহ ব্যাপক উন্নয়ন মূলক কাজ করেছেন, তাই আমরা মাসুদ পারভেজ লিটন হাওলাদারকে চতুর্থ বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত করার লক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় মাঠে নেমেছি।

চেয়ারম্যান লিটন হাওলাদার নির্বাচনী এক কর্মীসভায় বলেন, দীর্ঘ ১৮ বছর যাবৎ সু-নামের সহিত পূর্ব-ডামুড্যা ইউনিয়নে  চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছি। বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখাতে পূর্ব-ডামুড্যা ইউনিয়নে ব্যাপক উন্নয়ন মূলক কাজ করেছি। ২০১৬ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীক নিয়ে পূর্ব-ডামুড্যা ইউনিয়নে জনগণের ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি।

আমি আওয়ামী পরিবারের সন্তান, আমার বাবা মরহুম আব্দুল করিম হাওলাদার পূর্ব-ডামুড্যা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন, আমি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে বিশ্বাসী একজন সৈনিক, আমি আশাবাদী যে, ২৬ ডিসেম্বর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পূর্ব-ডামুড্যা ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণ আমাকে সর্বোচ্চ ভোট দিয়ে চতুর্থ বারের মত চেয়ারম্যান নির্বাচিত করবেন। (ইনশাআল্লাহ্ )

Facebook Comments

About T. M. Golam Mostafa

Check Also

শিক্ষার্থীদের তালাবদ্ধ করে কলেজ ত্যাগ করেছে অধ্যক্ষ ও প্রভাষকগন

শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ শিক্ষিার্থীদের তালাবদ্ধ করে কলেজ ত্যাগ করেছে শরীয়তপুর জাজিরা উপজেলা জয়নগর ডাঃ মোসলেমউদ্দিন খান …

কপি না করার জন্য ধন্যবাদ।