৫৭৯ দিন পর ফুলেল শুভেচ্ছায় শিক্ষার্থীদের বরণ করে নিলো জেড.এইচ. সিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

শাহাদাত হোসেন হিরু:

লাল গোলাপ এবং মিষ্টিমুখের মাধ্যমে নবীন শিক্ষার্থীসহ শিক্ষার্থীদের বরণ করে নিয়েছে জেড.এইচ. সিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। ১৭ অক্টোবর রবিবার সকাল ৯:৩০ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে বঙ্গবন্ধু চত্তরে মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. তালুকদার লোকমান হাকিম শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণের মাধ্যমে দিনের কার্যক্রম শুরু করেন। এ সময় শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক নিশ্চিত করে থার্মাল স্ক্যানার দিয়ে তাপমাত্রা পরীক্ষা করে বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করানো হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. তালুকদার হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সকল শহীদদের স্মরণ করেন এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা, দানবীর ও শিক্ষানুরাগী বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নুল হক সিকদার এর স্মৃতিচারণ করে তাদের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক আবদুল খালেক, মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন ও আইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এমরান পারভেজ খান, প্রক্টর ও আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. ইমামুনুর রহমান, ইলেক্ট্রিক্যাল ও ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগেরর প্রধান সহকারী অধ্যাপক সনেট কুমার সাহা, ইংরেজি বিভাগের প্রধান সহকারী অধ্যাপক মো. মাহরুফ হোসেন, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান সহকারী অধ্যাপক মো. মাহফুজুর রহমান, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রধান সহকারী অধ্যাপক মো. মতিয়ার রহমান, কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান সহকারী অধ্যাপক মো. রহিম উদ্দিন, আইন বিভাগের প্রধান মো. আবদুল করিম, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান মো. জহুর-উজ-জামান, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ভারপ্রাপ্ত) মো. মিজানুজ্জামান, ডেপুটি রেজিস্ট্রার খন্দকার তাহমিনা নিষাদ এলিন, মফর উদ্দিন সিকদার হলের প্রোভস্ট ও ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. আমিমুল এহসান, মনোয়ারা সিকদার হলের প্রোভস্ট ও কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের লেকচারার ফাতেমা আক্তারসহ অন্যান্য শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষাকার্যক্রম পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা পরিদর্শনের প্রয়াসে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন একে একে ক্লাসরুম, দপ্তর, বিভিন্ন বিভাগের ল্যাব, লাইব্রেরি, শহীদ মিনার, খেলার মাঠ ও বিশ্ববিদ্যালয় হল এলাকা ঘুরে দেখেন।

উল্লেখ্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে গত ০৯ অক্টোবর ২০২১ তারিখ আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের মকফর উদ্দিন সিকদার হল ও মনোয়ারা সিকদার হল আবাসিক শিক্ষার্থীদের জন্য খুলে দেয়া হয়। শিক্ষার্থীরা হলে অবস্থান প্রাক্কালে বলেন, ‘দেড় বছর অধিককাল পর আবারও আমরা আমাদের ঠিকানায় ফিরেছি। হলের রুমমেটদের সঙ্গে আনন্দ-উচ্ছ্বাসে সুখ-দুঃখ ভাগাভাগি করে নিতে পারব।

১৯ তম ব্যাচ আইন বিভাগের শিক্ষার্থী এইচ এম সাইফুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘ সময়ে ঘুম থেকে আজ মনে হচ্ছে জেগে উঠলাম। বিশ্ববিদ্যালয় খোলায় আমরা অনেক আনন্দিত। শিক্ষা জীবনে আমাদের আবার প্রাণ ফিরে আসলো।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. তালুকদার লোকমান হাকিম বলেন, অনেকদিন পর আজকে আমাদের বাগানটা পরিপূর্ণ হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ আমাদের স্নেহভাজন শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে ফিরে এসেছে। আমরা সবাই যেন Full text: 2639 রি। আমরা আজকে মূল স্রোতে ফিরে এলাম। মহান আল্লাহ আমাদের সহায় করেন।

Facebook Comments

About T. M. Golam Mostafa

Check Also

শরীয়তপুরে কলেজ ছাত্রলীগ নেতা কর্তৃক শিক্ষক লাঞ্চিত-ঘটনার জেরে কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা

আজকের শরীয়তপুর প্রতিবেদক শরীয়তপুরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের একজন …

কপি না করার জন্য ধন্যবাদ।