শরীয়তপুর-চাঁদপুর ফেরী ঘাটে কুরবানীর গরু স্ট্রোক করাকে কেন্দ্র করে নানা গুঞ্জন

বাবু শিকদার:
শরীয়তপুর-চাঁদপুর ফেরী ঘাটে ১৫ জুলাই দুপুর পৌনে তিন টায় যানযট ও অতিরিক্ত গরম থাকার কারণে একটি গরু স্ট্রোক করে। এ সময় তাৎক্ষনিক ভাবে ফেরী ঘাটের মোড়ে স্থানীয় মো: লোকমান বেপারী গরুটিকে জবাই করেন। জবাই করার সময় গরুটির লথি খেয়ে যশোর থেকে আসা গরুর রাখালের কয়েকটি দাঁত ভেঙ্গে যায়।

এ সময় ফেরী ঘাটের মাংস ব্যবসায়ী মোবারক শেখ গরুটি ৭০ হাজার টাকা দরদাম করেন। কিন্বতু মালিক লিটন বেপারী ১ লক্ষ টাকা দাম চায়। দরদামে এক মত হতে না পেরে লিটন বেপারী তার গরুটি লক্ষীপুরের কামার হাট বাজারে নিয়ে যায়।

এ ঘটনা সম্পর্কে ফেরী ঘাটের স্থানীয় হাজী মো: সুলতান দিদার সহ আরো গন্যমান্য ব্যক্তিগণ সাংবাদিকদের জানান, গরুটি স্ট্রোক করার পর জীবিত অবস্থায়ই জবাই করা হয়েছে। স্থানীয় মাংস ব্যবসায়ী ৭০ হাজার টাকা দরদাম করেছে কিন্তু মালিক পক্ষ অধিক মূল্যের আশায় নিজ এলাকা লক্ষিপুরে কামার হাটে নিয়ে যায়।

গরু ব্যবসায়ী মো: লিটন বেপারী সাংবাদিকদের জানান, পার্শ্ববর্তী আরেক মাংস ব্যবসায়ী ষড়যন্ত্র করে আমার ব্যবসায়ের সুনাম নষ্ট করার জন্য আমি মরা গরু জবাই করেছি বলে অপপ্রচার চালায় এবং বাজার কমিটিকে আমার বিরুদ্ধে লাগিয়ে দেয়। এসময় বাজার কমিটি আমার দোকানে এসে তালা ঝুঁলিয়ে দেয়। পুলিশ প্রশাসনকে জানায় এবং পুলিশ আমার দোকান তল্লাসী করে।
লক্ষীপুর মা-বাবার দোয়ার গোস্ত ভান্ডারের মালিক মো: লিটন বেপারী এি বিষয়ের সুষ্ট তদন্ত করে ষড়যন্ত্রকারীদের বিচার দাবি করেছেন।

Facebook Comments

About T. M. Golam Mostafa

Check Also

শরীয়তপুর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের অবস্থান কর্মসূচী

আজকের শরীয়তপুর ডেস্কঃ শরীয়তপুরে সাংবাদিক রোকনুজ্জামান পারভেজের উপর হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে …