শরীয়তপুরে নড়িয়ায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু্ই গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ২৫

শাহাদাত হোসেন হিরো:

শরীয়তপুরের নড়িয়ায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের দফায় দফায় সংঘর্ষে অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (১ জুন) দিনভর উপজেলার পুনাইকারকান্দি, জমিরউদ্দীন মাদবরের কান্দি, সাতঘরিয়াকান্দি ও মোড়লকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে উপজেলার রাজনগর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সুলতান মাদবরের সঙ্গে স্থানীয় টিপু মাদবরের দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এর ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার সকালে টিপুর সমর্থক নুরুল হক মাদবর স্থানীয় আন্ধার মানিক বাজার থেকে বাড়ি ফেরার সময় সুলতান মাদবরের সমর্থকরা তার ওপর হামলা করেন।

একই সময় তারা ইউনিয়নের পুনাইকারকান্দি, জমিরউদ্দীন মাদবরের কান্দি, সাতঘরিয়াকান্দি, মোড়লকান্দি গ্রামে দফায় দফায় টিপু মাদবর ও তার লোকজনের ওপর হামলা, বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়। একপর্যায়ে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। হামলাকারীরা গুলি ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে শতাধিক ঘর ভাঙচুর করেন। এতে অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছেন।আহতরা হলেন- সজিব মাদবর (২৮), দিদার মাঝি (২৭), জামাল সরদার (৪০), করিম মাঝি (৩০), নুরজামাল মাদবর (৩০), আজিজুল মাঝি (৪০), বাদশা মাঝি (২৮), বারেক মাদবর (৪০), টিপু মুন্সি (২২), ইমন মাদবর (১৯), লাল মিয়া মাদবর (৫০), নুরুল হক মাদবর (২২), আজিজুল মাদবর (৩৫) ও ছাত্তার মাদবরের (৬০)। বাকিদের নাম জানা যায়নি। আহতদের শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল, বিভিন্ন ক্লিনিক ও ঢাকা বিভিন্ন হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে টিপু মাদবর বলেন, সুলতান মাদবরের লোকজন হামলা করে আমাদের ২০-২৫ জনকে আহত করেছে। চারটি গ্রামে আমার ও আমাদের লোকজনের ৫০ লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে।

অভিযুক্ত সুলতান মাদবর বলেন, আমি ব্যবসার কাজে ঢাকা থাকি। ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আমার নাম ভাঙিয়ে এসব কাজ করছে এলাকার কিছু লোক।

নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অবনী শংকর কর বলেন, পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ থানায় অভিযোগ করেননি।

Facebook Comments

About T. M. Golam Mostafa

Check Also

ঢালাওভাবে সব অনলাইন পোর্টাল বন্ধ করা সমীচীন হবে না; তথ্যমন্ত্রী

আজকের শরীয়তপুর ডেস্কঃ তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধ করা …