জেড. এইচ. সিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালিত

ইরিনা ইসলাম শিলা (বি.এ অনার্স ইন ইংলিশ) জেড. এইচ. সিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়:

বর্ণিল আলোকসজ্জা ও যথাযোগ্য মর্যাদায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস-২০২১ উদযাপন করেছে জেড. এইচ. সিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। ২৬ মার্চ শুক্রবার সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিনটির কর্মসূচি শুরু করা হয় । পরে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে। তারপর বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু চত্ত্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করা হয়।

পরে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় । উক্ত অলোচনা সভায় প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ও আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. ইমামুনুর রহমান। বিশেষ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান সনেট কুমার সাহা, বিশ্ববিদ্যালয়ের মকফর উদ্দীন সিকদার হলের প্রভোস্ট ও ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রভাষক মো. আমিমুল ইহসান এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোয়ারা সিকদার হলের প্রভোস্ট ও কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রভাষক ফাতেমা আক্তার। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন আইন বিভাগের প্রভাষক মো. সাইফুজ জামান ।

আলোচকবৃন্দ বলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর নেতৃত্বে ১৯৭১ সালের ২৬শে মার্চ বাংলাদেশ নামক একটি নতুন রাষ্ট্রের জন্ম হয়। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর এ মাহেন্দ্রক্ষণে দাঁড়িয়ে আমরা দেখতে পাচ্ছি সেদিনের সেই নতুন রাষ্ট্রটি আজ দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম সমৃদ্ধ রাষ্ট্রে পরিণত হতে চলেছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ পরিচালনায় বাংলাদেশ এরই মধ্যে স্বল্পোন্নত রাষ্ট্র থেকে উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে পরিণত হতে যাচ্ছে। আগামী দিনগুলোতে এ ধারা অব্যাহত থাকবে এবং বাংলাদেশে আইনের শাসন ও সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠিত হবে বলে বক্তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এছাড়াও আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং  বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, আইন বিভাগের বিভাগীয় প্রধানসহ বিভিন্ন বিভাগের সম্মানিত শিক্ষক এবং অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

 

Facebook Comments

About T. M. Golam Mostafa

Check Also

সায়মা ওয়াজেদ পুতুল পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত এনামুল হক রাফিউ

স্টাফ রিপোর্টার: সায়মা ওয়াজেদ পুতুল পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *