জাজিরায় প্রতিপক্ষের হামলায় গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত ১, আহত ৮

শরীয়তপুর প্রতিনিধি// প্রতিপক্ষের হামলায় গুলিবিদ্ধ হয়ে শরীয়তপুর জাজিরা উপজেলার সেনেরচর ইউনিয়নের সাকিমালী মাদবর কান্দি গ্রামে মোঃ রিয়াজ মাদবর (১৮) নামে এক যুবক নিহত এবং ৮ ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত সহ বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে। স্থানীয় প্রত্যেক্ষদর্শী ও নিহত রিয়াজ মাদবর, এর পরিবার সূত্রে জানা যায়, এমদাদ মাদবর, করিম মাষ্টার ও পাশ্ববর্তী চরধিপুর ভোলাই মুন্সী কান্দি গ্রামের বেপারীর সাথে জমি সংক্রান্ত ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন যাবৎ বিরোধ চলে আসছিল। তারই সূত্রধরে কিছুদিন পূর্বে দু’গ্রুপের মধ্যে সহিংসতার ঘটনা ঘটে। সহিংসতার ঘটনার বিষয়টি জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় সালিশগণ আপোষ মিমাংসার চেষ্টা করলে মন্টু বেপারী তা প্রত্যাখ্যান করে। ২৭ জুন শনিবার বিকাল ৫টার দিকে এমদাদ মাদবরের পক্ষের কিছু সংখ্যক যুবক সেনেরচর ইউপি সদস্য রাজ্জাক মাদবর এর বাড়ির নিকট মাঠে খেলতে গেলে, মন্টু বেপারীর পক্ষের সোনামিয়া মাদবর এর ছেলে দুদু মিয়া ও এমদাদ মাদবর এর পক্ষে জুলহাস মাদবরের ছেলে রাসেল এর সাথে কথা কাটাকাটি ও ঝগড়ার সৃষ্টি হয়। পরে দুদু মিয়া তাদের দলের নেতা মন্টু বেপারীর কাছে বিষয়টি জানালে মন্টু বেপারী, হারুন বেপারী গং ব্যক্তিরা ক্ষিপ্ত হয়ে লাইসেন্সকৃত বন্দুক নিয়ে এমদাদ মাদবর ও করিম মাষ্টার এর লোকজনের উপরে হামলা করে। হামলায় লিটন মাদবর এর ছেলে মোঃ রিয়াজ মাদবর (১৮) গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলে নিহত হন এবং আরও ৮ ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন। আহত ব্যক্তিরা হলেন, মোঃ তানজিল মাদবর, মোঃ দেলোয়ার মাদবর, বাদশা বেপারী, রিমন মাদবর, রাজ্জাক মাদবর, মহসিন খান, ইয়ার মাদবর ও অন্তসত্ত্বা সীমা বেগম। আহত পাঁচ ব্যক্তিদের জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে এবং আহত বাকী তিন ব্যক্তিদের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। মোঃ এমদাদ মাদবর গণমাধ্যমকে জানান, মন্টু বেপারী ও তার ভাই হারুন বেপারী দীর্ঘদিন যাবৎ এলাকায় নিরীহ মানুষের উপরে জুলুম ও অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে। সাধারণ বিষয়ে মানুষের সাথে তর্ক বিতর্ক হলে বন্দুক নিয়ে বেড়িয়ে আসে ও মানুষের উপর হামলা চালায়। মন্টু বেপারী ও তার ভাই হারুন বেপারীর তান্ডবে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ। সাধারণ খেটে খাওয়া ভ্যান চালক লিটন মাদবর এর ছেলে মোঃ রিয়াজ মাদবর এর ছেলে’কে পাখির মতো গুলি করে হত্যা করেছে। এই হত্যাকারীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবী করছি। নিহত ও সহিংসতার ঘটনার বিষয়ে জাজিরা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আজাহারুল ইসলাম এর সাথে মুঠোফোনে আলাপকালে তিনি বলেন, সেনেরচর ইউনিয়নে চরধিপুর ভোলাই মুন্সী গ্রামে মন্টু বেপারী ও এমদাদ মাদবরের মধ্যে র্দীঘদিনের আধিপত্য বিস্তার’কে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের মধ্যে সহিংসতা বাড়ি-ঘর ভাংচুর, লুটপাটের ঘটনার সংবাদ পেয়ে আমি সহ জাজিরা থানার পুলিশ এর একটি দল, ঘটনাস্থলে যাই এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হই। সহিংসতার ঘটনায় মোঃ রিয়াজ মাদবর (১৮) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে এবং বেশ কয়েকটি বাড়ি-ঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে এবং হামলাকারীদের’কে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। নিহত রিয়াজ এর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

Facebook Comments

About Sm Sohage

Check Also

শরীয়তপুরে সড়ক ও জনপথ বালু ব্যবসায়ীর দখলে, ভোগান্তীতে পথযাত্রী!

আব্দুল বারেক ভূঁইয়া, শরীয়তপুর// শরীয়তপুর জাজিরা উপজেলার গঙ্গানগর বাজার হতে জয়নগর অভিমুখী তালতলা বাজার সংলগ্ন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *